সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

suki_poribar.jpg

সবাইতো সুখী হতে চায়

‘সবাই তো সুখী হতে চায় তবু কেউ সুখী হয়, কেউ হয় না। জানিনা বলে যা লোকে সত্যি কিনা- কপালে সবার নাকি সুখ সয় না’… গানের কথা হলেও সত্যিই সবার কপালে সুখ সয় না বা থাকে না।


সুখ শব্দের আভিধানিক অর্থ স্বাচ্ছন্দ্য, আরাম, তৃপ্তি, হর্ষ প্রভৃতি। কিন্তু জীবনে স্বাচ্ছন্দ্য বা আরাম থাকলেই কি কেউ সুখী হয়! সুখী হওয়া পুরোটাই নির্ভর করে নিজের উপর। যেহেতু সুখ আপেক্ষিক বিষয় তাই কে কতটা সুখী তা বিচার বিশ্লেষণ করা অসম্ভব। মনোবিজ্ঞানীদের মতে আত্মবিশ্বাসই হল সুখী হওয়ার মূলমন্ত্র। তার মানে যে যত আত্মবিশ্বাসী সে তত সুখী। এর কারণ হলো আত্মবিশ্বাসীরা সবসময় নিজের প্রতি আস্থা রাখে। কিছুতে টলে না। অন্যের কথা বিশ্বাস করে না। তাই তারা বেশি সুখী হয়।

এবার নিজেকে সুখী করতে আপনি এ কাজগুলো করুন-

নিজেকে ভালোবাসুন
সুখী মানুষেরা নিজেকে ভালোবাসে। নিজের জন্য যতটা পারা যায় করুন। নিজেকে নিয়ে ভাবা মানে যে অন্য কাউকে নিয়ে ভাববেন না তা নয়, নিজের জন্য ভাবা মানে নিজের পরিচর্যা করা। মনে রাখবেন নিজে সুস্থ না থাকলে সুখ থাকবে না।

আত্মকেন্দ্রিক নয়
সুখী হতে চাইলে আত্মকেন্দ্রিক নয় বরং বহির্মুখী হন। এতে আপনার মন ভালো থাকবে। মনে রাখবেন আপনি যদি একা থাকেন তাহলে বিষণ্ণতা আপনাকে গ্রাস করবে। তাই যতটা পারা যায় প্রিয়জনদের সাথে থাকুন। যদি তা সম্ভব না হয় তাহলে অন্তত ফোনে কথা বলুন।

ঘুরে বেড়ান
ঘরের মধ্যে বসে না থেকে সুন্দর কোনো জায়গা থেকে ঘুরে আসুন। দূরে কোথাও যাওয়া সম্ভব না হলে কাছে কোথাও যান। তাও যদি সম্ভব না হয় ঘর থেকে বাইরে বেরিয়ে খোলা জায়গায় হাঁটুন। প্রকৃতি আপনাকে সুখে থাকার অনুপ্রেরণা দেবে।

অতীত ভুলে যান
অতীতকে আঁকড়ে পড়ে থাকবেন না। যতটা পারা যায় খারাপ স্মৃতি ভুলে যান। অতীত থেকে শিক্ষা নিয়ে নতুন করে জীবন গড়ার চেষ্টা করুন।

কৃতজ্ঞতা বোধ
কেউ আপনার জন্য কিছু করলে তার প্রতি কৃতজ্ঞ থাকবেন। কৃতজ্ঞতা বোধ আপনাকে আত্মতৃপ্তি দেবে। তাই আপনি কারো মাধ্যমে উপকৃত হলে তাকে ধন্যবাদ দিতে বা কৃতজ্ঞতা জানাতে ভুলবেন না। উপকার করতে না পারলেও কখনোই কারো অপকার করবেন না। মনে রাখবেন সাময়িক আনন্দ পেলেও পাপ বোধ আপনাকে কুঁড়ে-কুঁড়ে খাবে।

হাসি-খুশি থাকুন
সুখে থাকার পূর্ব শর্ত হাসি-খুশি থাকা, তাই যতটা পারা যায় হাসি-খুশি থাকুন। নিজেকে সুখী রাখতে তাই হাসি-খুশি থাকতে হবে। দুঃখকে জয় করতে পারলেই আপনি সুখী হতে পারবেন।

রুটিন মেনে চলা
এলোমেলো জীবন নয় বরং একটু গুছিয়ে চলুন। দিনের শুরুতেই সারাদিনের রুটিন করে নিন এতে অনেক বেশি কাজ করতে পারবেন। কোনো কাজে ভুল হবে না।

সুন্দরের উপাসনা
সব সময় সুন্দরের খোঁজ করুন। চারপাশে যা কিছু আছে তারমধ্যেই ভালো লাগা খুঁজুন। দৃষ্টিটাকে সুন্দর করুন দেখবেন সব সুন্দর লাগছে। যখন সবকিছু সুন্দর লাগবে তখন আপনি এমনিই সুখী হয়ে উঠবেন।

মেডিটেশন
মেডিটেশন হল মনকে বশে রাখার মূলমন্ত্র। আর মন যখন বশে থাকবে তখন আপনি মনকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। এতে আপনি সুখী হয়ে উঠবেন। তাই সুখী হতে চাইলে মেডিটেশন করুন।

ভালো আছি
সকালে ঘুম থেকে উঠে মনে মনে বলুন ভালো আছি, তাহলে মনের মধ্যে ভালো লাগা কাজ করবে। নিজে যখন ভালো থাকবেন তখন আপনি সব কিছুতেই ভালো কিছু খুঁজবেন। তাই ভালো লাগাকে আত্মস্থ করুন।

এবার দেখুন সুখপাখিটা আপনার দরজায় কড়া নাড়ছে।


এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।