সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

hot1.jpg

বেলের উপকারিতা

দিনদিন বেড়েই চলেছে গরমের তীব্রতা। এই গরমে প্রাণ জুড়াতে এক গ্লাস ঠাণ্ডা বেলের শরবত আপনাকে যেমন হিমশীতল পরশ দেবে তেমনই শরীরের জন্যও এর উপকারিতা রয়েছে অনেক। চলুন জেনে নিই এর উপকারিতা-  

বেলে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, সি, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস ও পটাসিয়াম। এক কথায় বেল হল ঔষুধি গুণসম্পন্ন ফল। বেলের শরবত পেট ঠাণ্ডা রাখে। তাই ক্লান্তি দূর করে শরীরে শক্তি ফিরিয়ে দেয়। বেল গ্রীষ্মকালীন রোগ থেকে শরীরকে রক্ষা করে।

বেলে আছে প্রচুর ফাইবার তাই বেল খেলে কৌষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা দূর হয়। শুধু কৌষ্ঠকাঠিন্য নয়, বেল পেটের বিভিন্ন অসুখ সারাতে ভীষণ কার্যকর। আমাশয় ও ডায়রিয়া নিয়ন্ত্রণে কাঁচা বেল খেলে দ্রুত আরোগ্য লাভ সম্ভব। বেল নরম ও সহজ পাচ্য তাই এই ফল খাবার হজমে সাহায্য করে।

পাইলসের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতেও বেল বেশ কাজ করে। বেল আলসারের সমস্যা সমাধানেও বেশ কার্যকর। বেলের সাথে অল্প গোলমরিচ গুড়ো মিশিয়ে খেলে জন্ডিস ভালো হয়ে যায়। এছাড়া বেল শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

ব্রনের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতেও বেল বেশ উপকারি। বেলের ভিটামিন এ চোখ ভালো রাখে। ত্বক সুন্দর হয়।

পাকা বেলের শরবত আমরা প্রায়ই খেয়ে থাকি। কিন্তু পাকা বেল যদি না পাওয়া যায় বা সবসময় পাকা বেল পাওয়াও যায় না। তাই কাঁচা বেল কেটে সেদ্ধ করে শুকিয়ে সংরক্ষণ করা যায়। তারপর সেই বেল যে কোনো সময় আপনি শরবত বা মোরব্বা তৈরি করে খেতে পারেন। এভাবে সারাবছর বেল খেতে পারেন।



এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।