সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

 যে অভ্যাসে অফিসে আপনার ভাবমূর্তি নষ্ট হবেই

আপনি হয়তো আপনার অফিসে লাগাতার কর্ম করে যাচ্ছেন। আপনার কাজও অনেক ভাল। কিন্তু আপনার মাঝে যদি কিছু অভ্যাস থাকে তবে আপনার সকল পরিশ্রম বৃথা যেতে পারে। আপনার কিছু অভ্যাসের দরুণ অফিসে আপনার বদনাম হতে পারে। চলুন জানা যাক, কোন কোন অভ্যাসের দরুণ এমন হতে পারে:

সময়ের দিকে লক্ষ্য না রাখা: আপনি কি তাদের দলে যারা অফিসে সময় দিকে লক্ষ্য রাখে না? শুরুতেই আপনি আপনার সময় দেখে নিবেন। যানজট আছে জানলে একটু সকাল সকাল বের হবেন। আপনি কি প্রতিদিনই দেরিতে অফিসে যান? এমন করলে অফিসে আপনার ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হতে পারে।

দোষ বলে বেড়ানো: আপনি কি এই বিষয়টি খেয়াল করেছেন যে, আপনি একজনের কথা আরেকজনকে বলে থাকেন? যদি করে থাকেন তবে যত দ্রুত সম্ভব এই ধরনের খোশগল্প ছেড়ে দিন। যদি আপনি এক সহকর্মীর দোষ অন্য সহকর্মীর কাছে বলেন তবে আপনার উপর নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। দেখবেন কালক্রমে অফিসের পরিবেশ নষ্টের দায়ভার আপনার ঘাড়েই এসে পড়বে।

অগোছালো পরিবেশ: আপনি অফিস পরিষ্কার রাখার জন্য নোটিশ জারি করলেন কিন্তু আপনার নিজের টেবিলটাই অগোছালো করে রেখেছেন। তাহলে অন্যের টেবিল পরিষ্কারের আদেশ দিবেন না। আগে নিজেরটা পরিষ্কার রাখুন দেখবেন আপনার অধিনস্ত কর্মচারীরাও পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখছে।

দাম্ভিকতা: আপনার জুনিয়র বা সিনিয়র সবার সাথে নম্রভাবে কথা বলার অভ্যাস করতে হবে। যদি আপনি বলতে থাকেন আমি চাইলে এই করতে পারি, সেই করতে পারি তবে আপনার ভাবমূর্তি শেষ! এগুলোকে দাম্বিকতা বলা যায়।

উচ্চস্বরে কথা বলা: যদি অফিসের ফোন বা আপনার নিজস্ব মোবাইলের রিংটন জোড়ে জোড়ে বাঁজতে থাকে অথবা আপনি মোবাইল ফোনে উচ্চস্বরে কথা বলেন তবে আপনার আশেপাশে বসে থাকা লোকদের জন্য তা বিরক্তিকর হতে পারে।

উপর্যুক্ত বিষয়গুলো যে খারাপ তা আমরা সবাই জানি। ইন্টারনেট ঘাটলে এমন হাজারো কথা জানবেন। কিন্তু জেনেশুনেও অনেক সময় ভুল করে ফেলি। তাছাড়া হয়তো এই খারাপ অভ্যাসগুলোর কথা স্মরণেই থাকে না। আশা করি এই লেখা পড়ার পর কিছুটা হলেও খেয়াল হবে।


এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।