সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

bithi--1.png

শুক্তোঃ ট্র্যাডিশনাল শুক্তোর রেসিপিঃ

শুক্তো-- ট্র্যাডিশনাল বেঙ্গলি ফুড। আগে কখনো রান্না করিনি। তাই নেট ঘেঁটে একটি পারফেক্ট শুক্তোর রেসিপির খোঁজ করছিলাম। যা পেলাম তা হলো-- সবাই নিজেদের পছন্দমতো সবজি ইউজ করে। সর্ষে বাটা আর পোস্ত বাটা তো আছেই। কয়েকটা জিনিস কমন পেলাম। যেমনঃ ডালের বড়ি, বেগুন, করল্লা ও কাঁচকলা। নো ওনিওন, নো গারলিক। কেউ এতে পানির পরিবর্তে তরল দুধ ইউজ করে, কেউবা পানি ও দুধ দুটোই। কেউ হলুদ, লঙ্কা গুঁড়ো ইউজ করে তো কেউ দেখলাম একদম সাদা শুক্তো রান্না করে। কেউ ঝোল রাখে, আবার কেউ কেউ একদম শুকনো। শেষ-মেষ এই রেসিপি দাঁড়ালো। দেখুন তো, আপনাদের পছন্দ হয় কিনাঃ

শুক্তোঃ

যা প্রয়োজনঃ

কাঁচকলা-- ২টি
করল্লা-- বড় হলে ১টি
বেগুন-- বড়ো হলে ১টি
আলু-- মাঝারি ১টি
সীম-- ৬-৭টি
ঝিঙে-- ১টি
ডালের বড়ি-- ১০-১২ টি
পোস্ত বাটা-- ২ টে চামচ
সর্ষে বাটা-- ২ টে চামচ
আদা বাটা-- ১ টে চামচ
আস্ত পাঁচফোড়ন-- ১ চা চামচ
আস্ত রাঁধুনি-- ১ চা চামচ
ঘি-- ১ টে চামচ
সরিষার তেল-- ৪ টে চামচ
ভাজার জন্যে-- সাদা তেল
চিনি/লবন-- স্বাদমতো
হলুদ/মরিচ গুঁড়ো-- সামান্য( ইচ্ছা)

যেভাবে করবেনঃ

সবজিগুলি সব এক সাইজ করে কেটে ধুয়ে নিন। এক চা চামচ করে সাদা তেল গরম করে আলাদা আলাদা করে সবজি ও বড়ি ভেজে উঠিয়ে রাখুন। একই প্যানে সরিষার তেল গরম করে তাতে আস্ত পাঁচফোড়ন ও রাঁধুনি ফোঁড়ন দিন। আদা বাটা ভেজে তাতে সরিষা ও পোস্ত বাটা দিয়ে আরও মিনিট দুয়েক কষিয়ে নিন। এবার ঝোলের জন্যে আন্দাজমতো পানি দিন-- ৪-৫ কাপের মতো। পানি ফুটে উঠলে ভাজা সবজি, বড়ি, চিনি ও লবন দিয়ে ঢাকনা দিয়ে দিন। রঙ সুন্দর করার জন্যে এই সময় সামান্য হলুদ/মরিচ গুঁড়া দিতে পারেন। সবজি সেদ্ধ হলে ঘি দিয়ে মিনিট খানেক চুলায় রেখে নামিয়ে ফেলুন।

** সাদা ভাতের সাথে পরিবেশন করুন।


এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।