সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

শীতে চুল ও ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখার উপায়

শীত এসেছে। সাথে নিয়ে এসেছে শুষ্ক ত্বক ও উষ্ক-খুষ্ক চুল। তরুণ বা বৃদ্ধ যে বয়সেরই হোন না কেন শুষ্ক ত্বক এবং চুল আপনার প্রাকৃতিক উজ্জ্বলতা কেড়ে নিতে পারে। কিন্তু সামান্য কিছু প্রচেষ্টার মাধ্যমেই আপনি আপনার ত্বক ও চুলের উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে পারবেন।

চলুন জানা যাক শীতে ত্বক ও চুলের উজ্জ্বলতা ধরে রাখার কিছু উপায়:
গরম জলে গোসল পরিহার: শীতকালে গরম জলে গোসলটা আরামদায়ক ঠিক কিন্তু এটি ত্বক থেকে প্রাকৃতিক তেল ধুয়ে ত্বককে শুষ্ক করে। এ কারণে কুসুম কুসুম গরম পানি ব্যবহার করা উত্তম। গোসলের ৩০ মিনিট পূর্বেই শরীরে তেল মাসাজ করে গোসল করলে ত্বক দীর্ঘক্ষণ আর্দ্র থাকে। গোসলের সময় পানিতে কয়েক ফোঁটা জোজোবা বা বাদাম তেল দিয়ে গোসল করলেও ত্বক আর্দ্র থাকে। এটা বয়স্কদের জন্য খুবই ভাল পদ্ধতি।

ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার: ত্বককে আর্দ্র ও কোমল রাখতে ভাল ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে। এটি দিনে কমপক্ষে দু’বার ব্যবহার করা উচিৎ। হাত, পা, নখ, ঠোঁটের দিকে আলাদা নজর দিবেন। ঠাণ্ডায় ঠোঁট ফাটা একটা অতি সাধারণ সমস্যা। তাই লিপজেল, পেট্রোলিয়াম জেলি বা দেশি ঘি ব্যবহার করতে পারেন।

এন্টি-ড্যানড্রাফ শ্যাম্পু: যেহেতু আবহাওয়া পরিবর্তন হয়েছে ঠাণ্ডার প্রকোপ বাড়তে শুরু করেছে তাই আমাদের একটি সাধারণ সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে। তা হচ্ছে খুশকি ও চুলের শুষ্কতার কারণে চুল ঝরতে থাকা। সুতরাং ভাল এন্টি-ড্যানড্রাফ বা খুশকি নাশক শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার সপ্তাহে অন্তত দু’বার ব্যবহার করতে হবে।

পশমী কাপড় পরিহার: শীতকালে স্বাস্থ্যবান ত্বকের জন্য এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ টিপস। সরাসরি ত্বকের সাথে লাগিয়ে পশমী কাপড় পরিধান করা যাবে না। এক্ষেত্রে ত্বকের সাথে লাগিয়ে তুলার কাপড় পরিধান করে তার উপর পশমী কাপড় পড়তে হবে। অ্যালার্জিজনিত সমস্যা থাকলে চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ মোতাবেক কোন ধরনের কাপড় আপনার জন্য উপযোগী তা জেনে নিবেন।

সানস্ক্রিনের ব্যবহার: শীতকাল সানস্ক্রিন ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা নেই ভাবলে ভুল করবেন। মনে রাখবেন সানস্ক্রিন শুধুমাত্র গ্রীষ্মকালের জন্যই নয়। এটি সারা বছর ধরে প্রতিদিনই ব্যবহার করার প্রয়োজন পড়তে পারে।

সম্পূরক খাবার গ্রহণ: শীতকালে বয়স যতই হোক না কেন আপনাকে খাবারের প্রতি বিশেষ দৃষ্টি দিতে হবে। ওমেগা এসিড সমৃদ্ধ খাবার যেমন- কাজুবাদাম, আখরোট, তিসি বীজ, সয়াবিন ইত্যাদি খাবার খাবেন। এগুলো ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় ও চুলের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।
 
 সূত্র: দি হেলথ সাইট। 

এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।